Rupashree Prakalpa Application Form Download and Status Check

রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি। পশ্চিমবঙ্গ রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদন ফরম ডাউনলোড। কিভাবে রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন করা যাবে? রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের রূপশ্রী প্রকল্প অনলাইন আবেদন পদ্ধতি।

Rupashree Prakakalpa

কয়েক বছর আগে থেকেই পশ্চিমবঙ্গ সরকার কন্যাশ্রী, যুবশ্রী এবং সবুজ সাথী নামে বেশ কয়েকটি প্রকল্প চালু করেছে। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলো নতুন এক প্রকল্প যার নাম রূপশ্রী প্রকল্প। যে সমস্ত কন্যার বয়স 18 বছরের বেশি তারা এই রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারে এবং এই প্রকল্পের আওতায় তারা তাদের বিবাহের সময় এককালীন 25000 টাকা অনুদান পাবে সরকার থেকে।

পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান অর্থমন্ত্রী অমিত মিশ্র রাজ্য বাজেট পেশ করার সময় পার্লামেন্টে এই রূপশ্রী প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘স্বপ্নের প্রকল্প’ হল এই রূপশ্রী।

এই রূপশ্রী প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হলো কন্যাশিশুদের বাল্যবিবাহ বন্ধ করা। যে সমস্ত কন্যার পারিবারিক বাৎসরিক আয় দেড় লক্ষ টাকার কম, তারা তাদের বিবাহের সময় এই রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবে। নিচে এই রূপশ্রী প্রকল্পের সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য ও আবেদন ফর্ম দেওয়া হলো।

রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা

রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদনের জন্য প্রার্থীকে অবশ্যই নিচের যোগ্যতা গুলি মেনে চলতে হবে –


১. আবেদনকারীর বয়স অবশ্যই 18 বছরের বেশি হতে হবে তার বিবাহের সময় তবেই সে রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবে।

২. আবেদনকারীর পারিবারিক বাৎসরিক আয় বছরে দেড় লক্ষ টাকার বেশি চলবে না।

৩. আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের একজন স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

৪. রূপশ্রী প্রকল্পে আবেদনের জন্য কোনরূপ শিক্ষাগত যোগ্যতা বিচার করা হয় না। সুতরাং যে কোন মহিলা প্রার্থী যারা উপরের যোগ্যতা গুলি পালন করবে, তারাই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবে।

রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি

যে সমস্ত মহিলা প্রার্থী রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে ইচ্ছুক তারা এই প্রকল্পের আবেদন ফরম তাদের SDO, BDO অথবা Municipality অফিস থেকে সংগ্রহ করতে পারবে এছাড়াও রূপশ্রী প্রকল্পের ফর্মটি আমাদের ওয়েবসাইট থেকেও ডাউনলোড করে নিতে পারবে।। কমপক্ষে বিবাহের ২০ দিন পূর্বে এই রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে হবে।

রূপসী প্রকল্পের আবেদনপত্রটি সঠিকভাবে পূরণ করার পর এর সাথে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যুক্ত করে নিজের BDO, SDO অথবা Municipality অফিসে জমা দিতে হবে। আবেদনপত্র জমা দিয়ে বেশ কিছুদিন পরে সরকারি দপ্তর থেকে আবেদনকারীর বাড়িতে ভেরিফিকেশনের জন্য অফিসারের আসতে পারেন।


সমস্ত কাগজপত্র ও আবেদন সঠিক থাকলে এবং ভেরিফিকেশনের পর আবেদনকারীর ব্যাংক একাউন্টে এককালীন 25000 টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হবে। যা সাধারণত বিবাহের পাঁচ থেকে সাত দিন পূর্বে পাঠানো হয়।

আবেদনপত্র, এইখানে ক্লিক করে রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদন ফর্ম টি ডাউনলোড করে নিন।

রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি Offline এবং নিম্নলিখিত ডকুমেন্ট গুলি আবেদনের সময় প্রয়োজন –

১. আবেদনকারীর বয়সের প্রমাণপত্র (মাধ্যমিকের অ্যাডমিট কার্ড / জন্ম প্রমাণপত্র)।
২. পাত্রের সম্পূর্ণ তথ্য (নাম, ঠিকানা, সচিত্র পরিচয় পত্র)।
৩. প্রস্তাবিত বিবাহের প্রমাণপত্র হিসেবে বিবাহের নিমন্ত্রণ কার্ড অথবা বিবাহের রেজিস্ট্রেশন নোটিশ অথবা আবেদনকারীর স্বঘোষণা দিতে হবে।
৪. পাত্রের বয়সের প্রমাণপত্র (জন্ম শংসাপত্র / ভোটার / আধার / প্যান কার্ড)।
৫. আবেদনকারী পাত্রীর ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টের সম্পূর্ণ তথ্য (ব্যাংকের পাসবইয়ের প্রথম পাতার জেরক্স)।

রূপশ্রী প্রকল্পের প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি

রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদনপত্র সঠিকভাবে পূরণ করে এবং তার সাথে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যুক্ত করে SDO, BDO বা Municipality অফিসে জমা দেয়ার পর, সেখানকার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা সেই সমস্ত তথ্য ভেরিফাই করবেন এবং প্রয়োজনে আবেদনকারীর বাড়িতে পর্যন্ত আসতে পারেন ভেরিফিকেশনের জন্য।


সফল ভেরিফিকেশন এর পরে আবেদনকারীর ব্যাংক একাউন্টে এককালীন 25000 টাকা পাঠিয়ে দেয়া হবে। এই টাকা তার বিবাহের পাঁচ থেকে সাত দিন পূর্বে দেয়া হবে।

রূপশ্রী প্রকল্পের প্রধান লক্ষ্য

১. রূপশ্রী প্রকল্পের আওতায় কন্যারা তাদের বিবাহের সময় এককালীন 25000 টাকা পাবে।

২. এর ফলে বাল্যবিবাহের পরিমাণ অনেকটাই কমতে পারে।

৩. রূপশ্রী প্রকল্পের ফলে আর্থিকভাবে দুর্বল পরিবারগুলির অনেকটাই উপকার হবে।

৪. নারী শিক্ষার হার বৃদ্ধি পাবে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার রুপশ্রী প্রকল্পের জন্য দেড় হাজার কোটি টাকা ব্যয় করবে। এই প্রকল্পের ফলে সাধারণ মানুষের অনেকটাই উপকার হবে।

এই ছিল রূপসী প্রকল্প সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য। অতিরিক্ত তথ্যের জন্য তোমরা তোমাদের SDO, BDO ও Municipality অফিসে যোগাযোগ করতে পারো অথবা নিচের কমেন্ট বক্সে গিয়ে জিজ্ঞাসা করতে পারো, আমরা তোমাদের যথার্থ সাহায্য করার চেষ্টা করবো।

Recommend for you

16 thoughts on “Rupashree Prakalpa Application Form Download and Status Check”

  1. Sir,
    Ami rupashree r jonno appy korechilam.. r amar phone number e message o esechilo amar id number diye je “rupashree id has been passed for payment” kintu ekhono taka dhoke ni.. ami office e giye contact o korechilam but amake boleche okhan theke pass kore diyeche.. ekhon state theke kobe pathabe onara bolte Parche na..
    Ekhon ki korbo ??? please sir bolun..

    Reply
  2. Sir ami form joma kore6ilam February 2020 te… Emnki amar I’d no lekha ekta massage o ese6ilo march er 16 tarikh e… Biye hoye6ilo march 13.. But amar ekhono kono taka dhoke ni account e… Ki korbo ektu bolun sir pls

    Reply
  3. Amar mar cancer r jonne amar vison ahort time a biye thik hte chilo…matro 4din..ami apply korechilm bt amar ta cancle hye gexe plz help

    Reply
  4. AMAR 13 YEARS A EKBAR BIYE HOACHILO.BUT TAR KONO WITNESS BA DOCUMENTS NEI.SEI BIYETA FAMILY THEKEO MANE NA.SO AMAKE BIYETA BHENGE DITE HOY 1 MONTH ER MODDHE.EKHON AMR 25 YEARS NATUN KORE SANGSAR SURU KORTE CHOLECHI.AMI KI RUPASREE APPLY KORLE KONO LAV HOBE.PLEASE HELP KORBEN?

    Reply
  5. আমি বীণাপাণি মাহাত রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদন করেছিলাম। আমার বিবাহের তারিখ (24/07/2019)। এখনও ঐ টাকা আমার অ্যাকাউন্টে আসেনি। যাহাতে ঐ টাকা আমি পাই তাহার ব্যবস্থা করিয়া দিন।

    Reply
  6. Unmarried certificate এই ক্ষেত্রে কোন কতৃপক্ষ প্রদান করবেন, এবং আবেদন এর বয়ান কিরকম হবে?

    Reply
    • Hello Pintu, no authority will provide the Unmarried certificate. At the Declarations section of the Rupashree Application form, candidates have to sign and everything is okay with that no more certificate will require.

      Reply

Leave a Comment