Kanyashree K3 Scholarship for University Students Online Application 2018

10

পশ্চিমবঙ্গে নারী শিক্ষার হার বৃদ্ধি করতে এবং ছাত্রীদের বাল্যবিবাহ রুখে তাদেরকে শিক্ষার আঙিনায় আনার জন্য, পশ্চিমবঙ্গ সরকার কন্যাশ্রী প্রকল্প শুরু করে। এই কন্যাশ্রী প্রকল্পের আওতায় ছাত্রীরা তাদের বিদ্যালয়ের স্তর থেকে ইউনিভার্সিটি স্তর পর্যন্ত পড়াশোনার জন্য সরকারি আর্থিক অনুদান পাবে।

যে সমস্ত ছাত্রীর বয়স 13 থেকে 18 বছর তারা কন্যাশ্রী K1 এর জন্য আবেদন করতে পারবে এবং প্রতিবছর 750 টাকা করে পাবে। যে সমস্ত ছাত্রীর বয়স 18 থেকে 19 বছর এবং কলেজে পড়াশোনা করছে তারা কন্যাশ্রী K2 আবেদন করতে পারবে এবং এককালীন 25,000 টাকা সরকারি অনুদান পাবে।

এছাড়াও, যে সমস্ত ছাত্রীরা কোন কলেজে অথবা ইউনিভার্সিটি থেকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন (PG) কোর্স করছে তারাও কন্যাশ্রী K3 স্কিমের জন্য আবেদন করতে পারে। কন্যাশ্রী K3 স্কিমের আওতায় বিজ্ঞান বিভাগে ছাত্রীরা প্রতি মাসে 2500 টাকা এবং কলা ও বানিজ্য বিভাগের ছাত্রীরা প্রতি মাসে 2000 টাকা করে স্কলারশিপ পাবে।


ইউনিভার্সিটির ছাত্রীদের জন্য কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের সম্পূর্ণ তথ্য এবং আবেদন পদ্ধতি নিচে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো।

কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা

১. আবেদনকারীকে অবশ্যই একজন পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

২. কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে অবশ্যই কোন কলেজ অথবা ইউনিভার্সিটিতে পোস্ট গ্রাজুয়েশন (MA/M.Sc/M.Com) কোর্সে ভর্তি হতে হবে।

৩. যে সমস্ত ছাত্রীরা কোন‌ ওপেন ইউনিভার্সিটি থেকে PG কোর্স করছে তারাও এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারে।

৪. কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের আবেদনের জন্য প্রার্থীর অবশ্যই কন্যাশ্রী K2 আইডি থাকতে হবে। K2 আইডি না থাকলে কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের জন্য আবেদন করা যাবে না।

৫. আবেদনকারীর অবশ্যই গ্রাজুয়েশনে 45% নাম্বার থাকতে হবে, তবেই সে কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবে।

৬. বিবাহিত এবং অবিবাহিত ছাত্রীরা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে।

কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের সুবিধা

কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের আওতায় যে সমস্ত ছাত্রীরা পোস্ট গ্রাজুয়েশন (M.Sc/M.A/M.Com) কোর্স করছে, তাদের প্রতি মাসে 2500 টাকা (বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রীদের জন্য) এবং 2000 টাকা (কলা ও বাণিজ্য বিভাগের ছাত্রীদের জন্য) স্কলারশিপ দেওয়া হবে। স্কলারশিপের টাকা আবেদনকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হবে।

স্কলারশিপ, স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট-কাম মিনস (SVMCM) স্কলারশিপের অনলাইন আবেদন পদ্ধতি।

কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের অনলাইন আবেদন পদ্ধতি

কন্যাশ্রী K3 প্রকল্পের অনলাইন আবেদন পদ্ধতি ইউনিভার্সিটি ছাত্রীদের জন্য।

প্রথম ধাপ : সবার প্রথমে আবেদনকারীকে কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের অনলাইন ওয়েব সাইটে যেতে হবে, www.svmcm.wbhed.gov.in এবং এই ওয়েবসাইটে আসার পর ‘Register Here’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

svmcm registraion

দ্বিতীয় ধাপ : এই লিংকে ক্লিক করার পর, স্কলারশিপ সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পরের পেজে খুলে যাবে। ভালো করে ওই তথ্যগুলি পড়ে, Tick Box-এ টিক দিয়ে ‘Proceed for Registration‘ বটনে ক্লিক করতে হবে।

তৃতীয় ধাপ : এরপর রেজিস্ট্রেশন ক্যাটেগরি থেকে Directorate of Public Instruction (PBI) -এর নীচে Apply for Kanyashree Prakalpa (K3) অপশনে ক্লিক করতে হবে।

svmcm directorate

চতুর্থ ধাপ : ওই লিঙ্কে ক্লিক করার পর, একটি ভেরিফিকেশন ফর্ম আসবে, সেই ফর্মটিতে নিজের Kanyashree ID, নাম, জন্ম তারিখ, বাবা-মায়ের নাম দিয়ে তথ্য ভেরিফিকেশন করতে হবে। কন্যাশ্রী K1 ও K2 আবেদনের সময় যে তথ্য দিয়েছিলে সেই তথ্য এখানে দিতে হবে।

wb kanyashree verification

পঞ্চম ধাপ : কন্যাশ্রী আইডি সফলভাবে ভেরিফিকেশন হয়ে গেলে, আবেদনকারীকে স্কলারশিপের রেজিস্ট্রেশন ফর্ম ফিলাপ করতে হবে। এই ফার্মে আবেদনকারীর নিজস্ব ফোন নাম্বার, ইমেইল আইডি, বর্তমান কোর্সের নাম এবং ইউনিভার্সিটি, শেষ পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর দিতে হবে। এই রেজিস্ট্রেশনের সময় আবেদনকারীকে একটি পাসওয়ার্ড তৈরি করতে হবে, যা দিয়ে সে পরবর্তীকালে এই ওয়েবসাইট লগইন করতে পারবে।

Kanyashree successful verification
পঞ্চম ধাপ : সফলভাবে রেজিস্ট্রেশনের পর, আবেদনকারী একটি ‘Application ID’ পাবে। যার সাহায্যে সে অনলাইন লগইন করতে পারবে। এই Application ID টি লিখে রাখতে হবে, পরবর্তী ক্ষেত্রে ব্যবহারের জন্য।

svmcm application id

ষষ্ঠ ধাপ : এরপর আবেদনকারীকে Application ID এবং Password দিয়ে লগইন করতে হবে এবং Dashboard-এ ‘Edit Profile/Application‘ অপশনে ক্লিক করতে হবে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পুর্ণ করার জন্য।

svmcm dashboard

সপ্তম ধাপ : এখন অনলাইন আবেদন ফর্মটি সঠিকভাবে সমস্ত তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে এবং আবেদনকারীর স্ক্যান করা ছবি ও সই ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে। এরপর ‘Save & Next‘ বটনে ক্লিক করে পরবর্তী অংশে যেতে হবে।

svmcm complete form

অষ্টম ধাপ : সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করার পর আবেদনকারী যদি চাই, তার ব্যাংকের তথ্য পরিবর্তন করতে পারে অথবা আগের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অপরিবর্তিত রাখতে পারে।

Kanyashree bank account
অষ্টম ধাপ : এই ধাপে আবেদনকারীকে বেশ কিছু ডকুমেন্ট স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে। এই ডকুমেন্ট গুলি হলো –

  1. শেষ পরীক্ষার মার্কশিট এর উভয় দিক
  2. মাধ্যমিকের অ্যাডমিট কার্ড
  3. শেষ পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্
  4. আধার/রেশন/ভোটার কার্ড
  5. ব্যাংকের পাশ বই-এর প্রথম পাতা।

এই সমস্ত ডকুমেন্ট PDF ফরম্যাটে আপলোড করে ‘Submit Application‘ অপশনে ক্লিক করতে হবে। কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের আবেদন এর জন্য ইনকাম সার্টিফিকেট অথবা ইনকাম এফিডেভিট প্রয়োজন নেই।

svmcm documents

নবম ধাপ : এখন আবেদনকারীর দেওয়া সমস্ত তথ্য অনলাইনে সেভ হয়ে গেছে। এই সমস্ত তথ্য আর একবার ভালো করে দেখে নিয়ে ‘Finalize Application‘ অপশনে ক্লিক করতে হবে। এই অপশনে ক্লিক করার পর আবেদনকারী আর কোন তথ্য edit করতে পারবে না।

svmcm finalized

দশম ধাপ : আবেদন ফাইনালাইজ করার পর, আবেদনকারীকে ওয়েবসাইট থেকে ‘Head of the Institution Verification Certificate‘ ডাউনলোড করতে হবে, যেটিতে আবেদনকারীর নিজস্ব Application ID থাকবে। সেটা Head of the Institution-কে দিয়ে সই করাতে হবে।

svmcm hoi verification

একাদশ ধাপ : আবার Application ID ও Password দিয়ে Login করে, এই সই করা ‘Verification Certificate‘-টি স্ক্যান করে ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে।


এই স্কলারশিপের সম্পূর্ণ আবেদন পদ্ধতি অনলাইনে। তাই অনলাইনে আবেদন করার পর কোন ডকুমেন্ট কোথাও জমা দিতে হবে না। পশ্চিমবঙ্গ KanayshKan K3 স্কলারশিপের অনলাইন আবেদন পদ্ধতি শেষ। এখন আবেদনকারী ড্যাশবোর্ডে নিজের আবেদনের স্ট্যাটাস দেখতে পারবে।

গুরুত্বপূর্ণ তারিখ এবং তথ্য

কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপ 2018 সালের অনলাইনে আবেদন শুরু হবে সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে এবং অনলাইন আবেদনের শেষ হবে নভেম্বর 2018। এই স্কলারশিপের সম্পূর্ণ আবেদন প্রক্রিয়া অনলাইনে। অনলাইনে কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের আবেদন পর, আবেদনকারী নিজের স্কলারশিপের স্ট্যাটাস svmcm.wbhed.gov.in ওয়েবসাইটে লগইন করে দেখতে পারবে।

স্কলারশিপ, পশ্চিমবঙ্গের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য আরও স্কলারশিপ সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করো।

স্কলারশিপ সংক্রান্ত হেল্পলাইন

কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপের অনলাইন আবেদনের সময় অথবা আবেদনের পর কোন রকম সমস্যা হলে অথবা কোন প্রশ্ন থাকলে, আবেদনকারী helpdesk.svmcm-wb@gov.in ইমেলে যোগাযোগ করতে পারে অথবা 18001028014 ফোন নাম্বারে ফোন করে সাহায্য নিতে পারবে।

কন্যাশ্রী K3 স্কলারশিপ সংক্রান্ত অন্য কোন জিজ্ঞাসাবাদ প্রশ্ন থাকলে তোমরা নিচের কমেন্ট বক্সে জিজ্ঞাসা করতে পারো। আমার সাহায্য করার যথারীতি চেষ্টা করব। এই লেখাটি যদি তোমাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই শেয়ার করো।

10 COMMENTS

  1. Hlw sir…
    Ami burdwan university theke correspondence e m.a kor6i…K2 te 25000 peye6i….2017 te k3 apply kori…Bt akhn o kono update nei…Jara distance e m.a korche tara ki taka pabe na??

    • Hello Trisha, K3 Scholarship for all students- Regular and Distance Course. Login with your Application ID and Password on the svmcm.wbhed.gov.in website and check your scholarship application status.

  2. Hlw sir……..I am Madhumita Sadhukhan.
    ..ami 2018 august e Ignou te m.a admission hyechi..ami ki kanyashree k3 schoolarship pete pari..

  3. I am Malobika Das from uluberia applied for Kanyasree 3 in the year 2017. But I ve no update in my email. I can’t check my application status pls help.

    • Hello Malobika, visit the SVMCM website svmcm.wbhed.gov.in and login with your Application Number and Password. You can check you application status from there.

  4. I am student of M.A in Burdwan University Distance education. I applied k3 form previous year.I will eligible for this k3 scholarship.

    • Hello Juma, if you have Kanyashree k2 id, then you can apply for Kanyashree K3 Scholarship. Read the eligibility guidelines carefully.

    • Hello Pratyusha, students, who are pursuing Post Graduate courses in Science, Arts and Commerce stream from Universities of this State, only eligible for this Kanyashree K3 Scholarship.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here